জঙ্গিবাদে জড়িতদের ৫৬ ভাগই সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: জঙ্গিবাদের জন্য শুধু মাদ্রাসা শিক্ষাকে দায়ী করা যাবে না। কারণ, জঙ্গিবাদে যারা জড়িত তাদের মধ্যে শতকরা ৫৬ ভাগ সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিত। পুলিশ সদর দপ্তরের এক গবেষণায় এ কথা বলা হয়েছে। পুলিশের সন্ত্রাস বিরোধী ইউনিটের অতিরিক্ত ডিআইজি (গোয়েন্দা) মো. মনিরুজ্জামান আজ শনিবার সকালে এ কথা বলেছেন।

তিনি বলেছেন, যেসব জঙ্গি আমাদের হেফাজতে আছে তাদের বেশির ভাগই সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিত। ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে আয়োজিত ‘প্রিভেন্টিং টেরোরিজম অ্যান্ড এক্সট্রিমিজম থ্রু কমিউনিটি এনগেজমেন্ট’ শীর্ষক এক সেমিনারে এক গবেষণা রিপোর্ট প্রকাশ করেন তিনি। অতিরিক্ত ডিআইজি বলেন, ২০১৫ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে জঙ্গিবাদে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা ২৫০ জনেরও ওপর তারা এ গবেষণা চালান।

মনিরুজ্জামান বলেন, গ্রেপ্তার করা ওইসব ব্যক্তির মধ্যে শতকরা ৫৬ ভাগই সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিত।

শতকরা ২২ ভাগ মাদ্রাসা শিক্ষায় শিক্ষিত। বাকি ২২ ভাগ হয়তো অশিক্ষিত, না হয় ইংলিশ মিডিয়ামে শিক্ষিত। অন্যদিকে ধর্মীয় উগ্রপন্থা অথবা সন্ত্রাসে জড়িত শতকরা ৮০ ভাগই উগ্রবাদি হয়েছে ইন্টারনেট অথবা বিভিন্ন রকম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তিনি বলেন, বাকি ২০ ভাগ উদ্বুদ্ধ হয়েছে পরিচিত ব্যক্তিদের দ্বারা। গবেষণায় বলা হয়েছে, উগ্রবাদের জন্য শুধু শিক্ষার খাতকে দায়ী করার পক্ষে প্রমাণ নেই। এক্ষেত্রে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সবাইকে প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ নিতে হবে।