শিরোনাম :

  • সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আনুষ্ঠানিক গণতন্ত্রের পথে সুদান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সুদানে আন্দোলনরত বিরোধী ফ্রিডম এ্যান্ড চেইঞ্জ এলায়েন্স নেতৃত্ব এবং ট্রাঞ্জিসনাল মিলিটারি কাউন্সিলের (টিএমসি) মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ও সাংবিধানিক দুইটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে যাচ্ছে শনিবার (১৭ আগস্ট)। খবর সিনহুয়া নিউজের।

এ চুক্তি দুইটির মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক গণতন্ত্রের পথে আরও একধাপ এগিয়ে গেলো সুদান।

শুক্রবার (১৬ আগষ্ট) ট্রাঞ্জিসনাল মিলিটারি কাউন্সিলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই চুক্তি স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে শনিবার (১৭ আগষ্ট) স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় খার্তুমের ফ্রেন্ডশিপ হলে সুদানের বেসামরিক নেতৃত্বের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে।

এদিকে, ফ্রিডম এ্যান্ড চেইঞ্জ এলায়েন্স এর পক্ষ থেকে নেতৃস্থানীয় সাতি আল হাজও চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বিজ্ঞাপন

সার্বভৌম কাউন্সিলের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) আব্দাল্লা হামদাককে এই অন্তর্বতীকালীন সরকারের প্রধান হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

কিন্তু সুদানের রেভ্যুলিউসন ফ্রন্টের মুখপাত্র মোহাম্মাদ জাকারিয়া সিনহুয়া জানান, সেইসব চুক্তির ভেতরে আমাদের সাংবিধানিক দাবি দাওয়া স্থান পাচ্ছে কি না, তা যেহেতু আমরা জানতে পারছি না, তাই এই চুক্তি স্বাক্ষর হলে কোন ধরণের পরিবর্তন হবে বলে আমরা মনে করি না।

এর আগে, ৫ জন বেসামরিক এবং ৫ জন সামরিক প্রতিনিধির সমন্বয়ে ১১ সদস্য বিশিষ্ট সার্বভৌম কাউন্সিল গঠনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক গণতন্ত্রের পথে সুদানের যাত্রা শুরু হয়েছিল।