• রবিবার, ১৯ মে, ২০১৯

সাতক্ষীরায় নিম্নমানের ইটে রাস্তা নির্মাণ, ফেসবুকে ইউএনওর মন্তব্য

2016_07_18_10_40_55_o1t00A36daZAbMjU3prFe0VZbqpqW9_originalসাতক্ষীরার : সাতক্ষীরায় তিন নম্বর বা তারচে নিম্নমানের ইট দিয়ে চলছে রাস্তা নির্মাণের কাজ। জেলার আটাত্তরটি ইউনিয়নের প্রায় প্রত্যেকটিতে এলজিইডির অধীনে চলছে এ কাজ। অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ পেয়ে মাঠে নেমেছে প্রশাসন।

রোববার সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ্ আব্দুল সাদী ব্রহ্মরাজপুর ই্উনিয়নে নির্মানাধিন একটি রাস্তা পরিদর্শন শেষে নিজের ফেইসবুক আইডিতে মতামত তুলে ধরেন এভাবে-‘রাস্তা নির্মাণে দিতে হবে পিকেটের খোয়া, দিচ্ছে ৩ নম্বর ইট এবং নম্বরবিহীন বাতিল রেইন স্পট ইটের খোয়া। কী দুর্ভাগ্য আমাদের।  ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের লবণগোলা থেকে হাটখোলা পর্যন্ত ১.১০ কি.মি রাস্তা। উপজেলা প্রকৌশলী জানালেন ঠিকাদার ঈদের ছুটির মধ্যেই কাজের Major অংশ করে ফেলেছেন। রাস্তা বানিয়ে ফেলছেন, প্রকৌশলীর প্রয়োজন হচ্ছে না। ম্যাকাডামের প্রথম লেয়ার করেছেন, দ্বিতীয় লেয়ারও করে ফেলেছেন। কিন্তু উপজেলা প্রকৌশলী জানালেন প্রথম লেয়ারেরই প্রত্যয়ন তিনি দেননি। তাহলে দ্বিতীয় লেয়ারের কাজ শুরু হলো কীভাবে? এই নিম্নমানের ইটের খোয়া দিয়ে রাস্তা তৈরির কাজ করায় স্থানীয়রা তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘এই কাজটি উপজেলা পরিষদের নয়। এটা সাতক্ষীরা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলীর মহোদয়ের অফিসের কাজ। উপজেলা প্রকৌশলীকে এই নিম্নমানের ইটে দিয়ে রাস্তা তৈরির কাজ বন্ধ রাখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে রোববার (১৭ জুলাই)। এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রেরণ করা হবে। দেখা যাক কোনো প্রতিকার হয় কি-না। রাস্তা, ব্রিজ, ভবন নিম্নমানের বানানোর চেয়ে না বানানোই উত্তম বলে আমি মনে করি। কেননা নিম্নমানের অবকাঠামো অর্থনীতির উপর নেতিবাচক প্রভাব রাখে বা negatively affect করে।’ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার এ পরিদর্শন ও মন্তব্যে এলাকায় স্বস্তি ফিরে আসে বলে জানান অনেকে।