কলেজছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

গোপালগঞ্জের শহরে গোবিন্দ বৈরাগী (১৯) নামের এক কলেজছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিকে শহরের নিচুপাড়া আমেনা স্কুলের পাশের একটি সফেদাগাছ থেকে গলায় রশি বাঁধা ঝুলন্ত অবস্থায় তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়।

গোবিন্দ বৈরাগী জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার হিরণ ইউনিয়নের পোলসাইর গ্রামের সন্তোষ বৈরাগীর একমাত্র ছেলে। তাঁর আরও চার বোন রয়েছে। তিনি গোপালগঞ্জ সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজে দর্শন বিষয়ে সম্মান প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

স্থানীয় লোকজন জানান, গোবিন্দ শহরের নিচুপাড়া আমেনা স্কুলের পাশে মো. শাহানূর আলমের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। সেখানে আরও ছয়জন ছাত্রের সঙ্গে বসবাস করতেন তিনি। আজ সকালে ওই বাড়ির পাশে জ্বালানি কাঠ বিক্রেতা শফিক আহমেদের বাড়ির একটি সফেদাগাছে গোবিন্দকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় এলাকাবাসী। পরে খবর পেয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানা-পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

ওই বাড়ির দুই নিবাসী জানান, গোবিন্দ গতকাল বুধবার গ্রামের বাড়িতে যান এবং সন্ধ্যার আগেই ফিরে আসেন। রাত দেড়টা পর্যন্ত তিনি নিজের শয্যায় ছিলেন। সকাল ছয়টার দিকে তাঁর লাশ সফেদাগাছে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

গোপালগঞ্জ সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের অধ্যক্ষ মতিয়ার রহমান বলেন, ‘গোবিন্দ বৈরাগী কলেজের দর্শন বিষয়ে অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিল। আজ তাঁর লাশ উদ্ধারের খবর পেয়েছি।’

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম রেজা জানান, এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ মৃতের পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।