শিরোনাম :

  • সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

রোহিঙ্গাদের নিয়ে বিএনপিও ‘উস্কানি’ দিচ্ছে: কাদের

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিএনপির সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘রোহিঙ্গাদের নিয়ে সীমান্তে গত দুই বছরে থেকে মিয়ানমার সরকার যে উস্কানি দিচ্ছে, যে ভাষায় কথা বলছে; বিএনপিও সে উস্কানির ভাষায় কথা বলছে।’

সোমবার (২৬ আগস্ট) রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটশেন ১৫ আগস্ট জাতির পিতা ব্ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, উখিয়া-টেকনাফে আমাদের জনসংখ্যা চার লাখ আর রোহিঙ্গা ১১ লাখ। এ রোহিঙ্গাদের জন্য দেশে-বিদেশে তদবিরের পর তদবির কারা করেছেন? আপনারা (বিএনপি) করেছেন…. এখন তারা নিজেরা রাজনীতিতে সঙ্কটের ফাঁদে পড়ে আবলতাবল বকছে। দু’বছর থেকে সীমান্তে মিয়ানমার সীমান্তে বারবার উস্কানি দিয়েছে। আমাদের নেত্রী বারবার সতর্ক করেছেন, এদের ফাঁদে পা দেওয়া যাবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘মিয়ানমার সরকার গত দুবছর ধরে সীমান্তে সুরে কথা বলেছ, সে সুরে কথা বলছে বিএনপি।’

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার সরকারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ আগের যেকোন সময়ের থেকে বেশি দাবি করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে চাই না। কেন চাই না, তার একটা ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট রয়েছে। এটা নিয়ে যারা কাজ করে তারা এটা ভালো জানে। মিয়ানমার সরকারের ওপর প্রেসার আগের থেকে অনেক বেড়েছে৷ তাই ভেতরে যাই থাক এখন তারা এদের ফিরিয়ে নেওয়ার মুখে কথা বলছে, এটা শেখ হাসিনার সরকারের সফলতা।’

বিএনপি বিভিন্ন ইস্যুতে ধোঁয়া তুলে নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার চেষ্টা করছে অভিযোগ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি নেত্রী দেড় বছর থেকে দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে কারাগারে রয়েছেন। কিন্তু বিএনপি নেতারা দেড় মিনিটের জন্যও আন্দোলন করতে পারেনি। বেপরোয়া চালকের মতো রাজনীতিতে এরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। ইতিহাসের কলঙ্কজনক রক্তাক্ত ঘটনায় নিজেদের মুখোচ উন্মোচিত হওয়ায় এরা আজ বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।’

সড়কমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি বিষোদগার-মিথ্যাচার করছে। রাজনীতির পরিশুদ্ধ ভাষার ব্যবহার করতে এরা ভুলে গেছে। ১৫ ও ২১ আগস্টে সংশ্লিষ্টতা প্রমাণের অপেক্ষা রাখে না। আদালতে, জনতার আদালতে এটা এখন প্রমাণিত। আগস্ট মাসে এদের মাথা খারাপ হয়ে যায়। বিএনপি এখন অপরাধের শৃঙ্খলে আবদ্ধ হয়ে পড়েছে। ব্যর্থ রাজনীতিকের অসহায়ত্ব ঢাকতে দলটির নেতারা এখন মিথ্যা প্রলাপ বকছেন।’

১৫ আগস্ট এবং ২১ আগস্টের সঙ্গে বিএনপি জড়িত দাবি করে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘আমি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবের কাছে বহুদিন থেকে একটি প্রশ্ন করছি, কিন্তু তার জবাব আজও পায়নি। জিয়াউর রহমান যদি ১৫ আগস্টের সঙ্গে জড়িত নাই হতেন তিনি খুনিদের বিচারেরর পথ কেন রূদ্ধ করেছিলেন? এখানেই আপনাদের সংশ্লিষ্টতার প্রত্যক্ষ প্রমাণ। এ কথা আপনারা কখনও স্বীকার করেন না।’

এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর কথা থেকেই আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। তিনি বলেছেন, বড় কাজ করতে হলে বড় ত্যাগ শিকার করতে হবে। শেখ হাসিনা সে পথেই এগিয়ে চলেছেন। তাকে থামিয়ে দেওয়ার জন্য চক্রান্ত চলছে। আমি আপনাদের বলবো জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তাদের এ চক্রান্তকে প্রতিহত করতে হবে।’

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিমসহ অনেকে।