শিরোনাম :

  • সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

পাকিস্তানের সামনে ভারতের রানের পাহাড়

স্পোর্টস ডেস্ক: পাক-ভারত ব্যাট-বলের ময়াদানি লড়াইয়ে পাকিস্তানের সামনে ৩৩৭ রানের পাহাড় দাঁড় করিয়েছে ভারত। টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে রোহিত শার্মার (১৪০) ও বিরাট কোহলি (৭৭) রানের ওপর ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩৩৬ রান সংগ্রহ করে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা।

বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচকেও হার মানায়, সেরকমই একটি ম্যাচ ভারত-পাকিস্তানের মহারণ। খেলা শুরু হওয়ার অনেক আগে থেকেই ভক্ত-ক্রিকেট বিশ্লেষক ও সাবেকদের ঘুম নেই এই উত্তেজনায়। তার ওপর ম্যাচটি যদি হয় বিশ্বকাপ আসরের কোনো খেলা, তাহলে উদগ্রীবের মাত্রাটা বেড়ে যায় অনেকখানি বেশি। এই ম্যাচটি উত্তেজনা বাড়ানোর আরো একটি বড় কারণ হলো, ম্যাচটি শুধু খেলায় সীমাবদ্ধ থাকে না। দুই দেশের ভৌগলিক ও রাজনৈতিক অঙ্গনেও চলে আসে এর চাপ। তাই দু‘দেশের মান-সম্মানের লড়াইও বটে এটি।

সেরকমই পরিস্থিতি নিয়ে রোববার ম্যানচেস্টার ওল্ড ট্রাফোর্ডে সকাল ১০টায় (বংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩ টায়)মাঠে নামে ভারত ও পাকিস্তান। টস জিতে ভারতকে আগে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানায় পাক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

ভারতীয় টপ অর্ডারদের রুখতে পাক অধিনায়ক শুরুতেই আক্রমণে আনেন দলের সেরা বোলিং অস্ত্র বামহাতি পেসার মোহাম্মাদ আমিরকে। তাতে ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শার্মা ও লোকেশ রাহুলও শুরু করেন সাবধানীভাবে। তাড়াহুড়ো না করে ভালো বলকে দিয়েছেন যথাযথ সম্মান, আবার খারাপ বল পেলেই বুঝিয়ে দিচ্ছেন যোগ্য পাওনা।

দেখে-শুনে খেলায় পাক বোলারদের সামনে উইকেট পাওয়ার ভালো কোনো সুযোগও দিচ্ছিলো না ভারতীয় দুই ওপেনার। তবে ইনিংসে ওয়াহাব রিয়াজের করা দশম ওভারের প্রথম বলেই ভুল বোঝাবুঝিতে রানআউটের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল; কিন্তু পাকিস্তানি ফিল্ডার ফখর জামানের ভুলে জীবন পেয়ে যান রোহিত শর্মা। আর তাতে পাওয়ারপ্লের ১০ ওভারে ৫৩ রান তুলে নেয় ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। ১৮ ওভারেই তুলে নেয় দলীয় শতক। অপ্রতিরোধ্য ভারতীয় দুই ওপেনারকে একে একে সব অস্ত্র ব্যাবহার করেছেন সরফরাজ আহমেদ; কিন্তু কোনোভাবেই সাফল্য এনে দিতে পারেনি বোলাররা। দ্বিতীয় স্পেলে বল করতে এসে ভারতের ব্যাটিং লাইন আপে প্রথম আঘাত হানেন পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। ওয়াহাবের দুর্দন্ত এক ডেলিভারিতে বাবর আজমের তালুবন্দী হয়ে ৫৭ রান করে ফেরেন লোকেশ রাহুল। ২৩.৫ ওভারে ওপেনিং জুটি থেকে আসে ১৩৬ রান।