• শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০১৯

দুই দিনে ৮৭ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল, অধিকাংশই বিএনপির

3 Lawerনিজস্ব প্রতিবেদকঃ আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দ্বিতীয় ও শেষ দিনে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৬৬ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট এলাকার রিটার্নিং কর্মকর্তারা এগুলো বাতিল করেন।

এর মধ্যে সিলেটে ৬, মৌলভীবাজারে ১, গোপালগঞ্জে ২, টাঙ্গাইলে ৩, নরসিংদীতে ২, কিশোরগঞ্জে ২, নোয়াখালীতে ১, কুড়িগ্রামে ২, নওগাঁয় ২, বাগেরহাটে ১, পঞ্চগড়ে ১, বরগুনায় ৩, সাভারে ১, বগুড়ায় ৬, যশোরে ৪, বরিশালে ১, গাইবান্ধায় ৫, সিরাজগঞ্জে ৩, নাটোরে ৩, ময়মনসিংহে ৬, পিরোজপুরে ১, দিনাজপুরে ১, শেরপুরে ৮ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১ জন মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।
রবিবার শেষ দিনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের কাজ শেষ করেছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার রিটার্নিং কর্মকর্তারা।
এর আগে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের প্রথম দিনে মোট ২১ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়। এ নিয়ে দুই দিনে মোট ৮৭ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হলো।

শেষ দিনে সিলেটের গোলাপগঞ্জ, কানাইঘাট ও জকিগঞ্জে ৬ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। রবিবার দুপুরে বাছাইকালে গোলাপগঞ্জ পৌরসভায় বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম কিবরিয়া শাহীনসহ ৩ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন রিটার্নিং অফিসার।

এ পৌরসভায় মনোনয়ন বাতিল হওয়া অপর দুই প্রার্থী হচ্ছেন সুহেদ আহমদ, খেলাফত মজলিসের আমিনুল ইসলাম। একই সঙ্গে কানাইঘাট পৌরসভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম ও খেলাফত মজলিসের ইসলাম উদ্দিনের মনোয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।
জকিগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফারুক আহমদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

মৌলভীবাজার পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী অলিউর রহমানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। রবিবার দুপুরে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে রিটার্নিং অফিসার তার মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন।

মৌলভীবাজার পৌরসভা নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার মাসুকুর রহমান সিকদার জানান, বিএনপির মেয়র প্রার্থী অলিউর রহমানের আয়কর রিটার্নের কাগজ না থাকার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ জেলা নির্বাচন কমিশন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মমিনুর রহমান জানান, গোপালগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৩ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।

তারা হলেন, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী, জাতীয় পার্টির প্রার্থী সোহেদ আহমদ ও খেলাফত মজলিসের আমিনুল ইসলাম আমিন।
মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কাজী লিয়াকত আলী লেকু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মুশফিকুর রহমান লিটনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের শেষ দিনে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে মেয়র পদে ১ জন ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৫ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ আবদুল আওয়াল জানান, হলফনামায় ভুল তথ্য প্রদানের দায়ে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তারিকুল ইসলাম চঞ্চল, সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী মফিজুর রহমান খান, ফরমান আলী, মো. আইয়ুব আলী, নবাব আলী, ফরহাদ আলী ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী কোহিনুর বেগমের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

বরগুনার তিনটি পৌরসভার মধ্যে দুটি পৌরসভায় দুই মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বতিল করা হয়েছে। শনিবার মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে রিটানিং কর্মকর্তা তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন।

এরা হলেন- বরগুনায় জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী অব. সার্জেন্ট আবদুল জলিল ও বেতাগী পৌরসভার বর্তমান মেয়র আলতাফ হোসেন বিশ্বাস।
বরগুনা পৌরসভা নির্বচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা প্রকৌশলী মো. আবদুল্লাহ জানান, অগ্রণী ব্যাংকে আবদুল জলিলের বিরুদ্ধে ঋণ খেলাপির মামলা থাকায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

অন্যদিকে, বেতাগী পৌরসভা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দুটি মনোনয়নপত্র রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে জমা পড়ে। এদের মধ্যে এবিএম গোলাম কবিরের মনোনয়নপত্র বহাল রেখে আলতাফ হোসেন বিশ্বাসের মনোনয়নপত্র বতিল করা হয়।

বেতাগী পৌরসভা নির্বচনের রিটানিং কর্মকর্তা মো. দুলাল তালুকদার জানান, আলতাফ হোসেন বিশ্বাস নৌকার পক্ষে মনোনয়নপত্র জমা দিলে আওয়ামী লীগের সর্বশেষ চিঠি অনুযায়ী তার মনোনয়নপত্র সঠিক না হওয়ায় বাতিল করা হয়েছে।

মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষ দিনে নরসিংদী পৌরসভার মেয়র পদে ৮ জন প্রার্থীর মধ্যে দুই প্রাথীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করেছেন রিটার্নিং অফিসার।
রবিবার সকালে নরসিংদী সার্কিট হাউজে জেলা রিটার্নিং অফিসার সুরাইয়া বেগম প্রার্থীদের উপস্থিতে মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম মানিক (স্বতন্ত্র), আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম (ইসলামী ঐক্যজোট) এর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন।

রিটার্নিং অফিসার জানান, মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম মানিক (স্বতন্ত্র) যে ১০০ ভোটার তালিকা প্রদান করেছে তার মধ্যে পৌরসভার বাহিরের ভোটার রয়েছে বেশির ভাগ অন্যদিকে আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম (ইসলামী ঐক্যজোট) ভোটার তালিকা কোনো ঘরই পূরণ করেননি। তাই দুইজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বড় দুই দলের দুই বিদ্রোহী মেয়র ও একজন কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়নপত্র রবিবার যাচাই বাছাইয়ে বাতিল করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, কটিয়াদী পৌরসভা নির্বাচনে ৫ জন প্রার্থী মেয়র পদে তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে মেয়র পদে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে স্বতন্ত্র মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক তানভীরুল হক রাহাত ও বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি কৃষিবিদ গোলাম ফারুক চাষী।

হলফনামায় প্রার্থীদের স্বাক্ষর না থাকায় তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া কাউন্সিলর পদে ৯নং ওয়ার্ডের আসাদ মিয়া হালফ নামায় শিক্ষাগত যোগ্যতা উল্লেখ না করায় তা বাতিল করা হয়।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফারুক মিয়া বলেন, মনোনয়ন পত্রের হলফ নামায় স্বাক্ষর ও শিক্ষাগত যোগ্যতা উল্লেখ না থাকায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও একজন কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়।

নোয়াখালীর চাটখিল পৌরসভা নির্বাচনে রবিবার বাছাইয়ে মেয়র পদে কার্তিক দেবনাথ (স্বতন্ত্র) ও ৮নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে আলা উদ্দিন বাদ পড়েছেন।
মেয়র পদে কার্তিক দেবনাথ আয়কর সনদ ও ছবি সত্যায়িত না করায় এবং কাউন্সিলর পদে আলা উদ্দিন ঋন খেলাফির কারনে বাদ পড়েছেন বলে রির্টানিং কর্মকর্তা জানান।

কুড়িগ্রামের উলিপুর পৌরসভায় ৮ জন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে রবিবার বাছাইয়ে ২ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। তারা হলেন আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবু সাঈদ সরকার ও বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক।

রিটার্নি অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার দেলোয়ার হোসেন জানান, তথ্য গোপন এবং মনোনয়নপত্র সঠিক ভাবে পূরন না করায় তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। তবে তাদের আপিলের সুযোগ রয়েছে।

পঞ্চগড় পৌরসভার মেয়র পদে স্বতন্ত্রপ্রার্থী জেলা জামায়াতের আমির মাওলানা আবদুল খালেকের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।
নওগাঁ ও নজিপুর পৌরসভায় নির্বাচনের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই সম্পন্ন হয়েছে। রবিবার নওগাঁ পৌরসভার জন্য নওগাঁ জেলা প্রশাসনের সভাকক্ষে ও নজিপুর পৌরসভার জন্য পত্নীতলা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হয়।

যাচাই-বাছাই এ নজিপুর পৌরসভার স্বতন্ত্র প্রার্থী রমজান আলী ও জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী আসগর আলীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।
এছাড়া দুই পৌরসভার সাধারণ ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলদের মধ্যে ১৭ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে যাচাই-বাছাইয়ের ২য় দিনে রবিবার মেয়র প্রার্থী মোকাম্মেল হোসেন ফকিরের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।
তিনি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর মনোনীত প্রার্থী ছিলেন। কৃষি ব্যাংক মোরেলগঞ্জ শাখায় ২ লাখ টাকার ঋণ খেলাপির অভিযোগে মোকাম্মেল হোসেন ফকিরের মনোনয়ন বাতিল হয় বলে সহকারী রিটানিং মো. ওবায়দুর রহমান জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, শনিবার মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের প্রথম দিনে সারাদেশে বিএনপির ৯ প্রার্থীসহ মোট ২১ জন মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়।