মেয়র পদে ১৬৬ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল, বিএনপির ১৫

02নিউজ ডেস্ক: পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ে মোট ১৬৬ জনের প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে।
হলফনামায় তথ্য গোপন, স্বাক্ষর না থাকা, মনোনয়নপত্রের সঙ্গে প্রত্যয়নপত্র না থাকা, ঋণখেলাপি হওয়াসহ বিভিন্ন কারণে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।
দুদিন বাছাই শেষে রবিবার রাতে নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন সমন্বয় ও সহায়তা শাখার একজন কর্মকর্তা এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘কমিশনের নিজস্ব সফটওয়্যার সিএমএসের মাধ্যমে মাঠ পর্যায় থেকে তথ্য পাঠানো হয়েছে। এতে দেখা গেছে, মেয়র পদে ১৬৬ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৫৭১ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১৫৬ জনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।’

মোট ২৩৪ পৌরসভায় অনুষ্ঠেয় এ ভোটে মেয়র পদে কোন দলের কতজন প্রার্থী বাদ পড়েছেন, তা জানাতে পারেননি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা।
তবে জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যে, এ পর্যন্ত বিএনপির ১৫ জন এবং দলটির বিদ্রোহী ৪৩ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ার খবর জানা গেছে।

এছাড়া দুদিন মিলে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের চারজন, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ৩০ এবং স্বতন্ত্র ৭০, জাসদের দুজন, ওয়ার্কার্স পার্টির একজন, খেলাফত মজলিশের একজন, ইসলামী ঐক্যজোটের একজনের প্রার্থিতা বাতিল হয়েছে।
মনোনয়ন বাতিল হওয়া প্রার্থীরা জানিয়েছেন, তারা প্রার্থিতা ফিরে পেতে নির্বাচন কমিশনে আপিল করবেন।

যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে তারা তিন দিনের মধ্যে আপিল করার সুযোগ পাবেন বলে ইসির উপসচিব সামসুল আলম জানিয়েছেন।

ইসির সমন্বয় শাখা থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, নির্বাচনে মেয়র এবং সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদ মিলিয়ে মোট ১৩,৬৮৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। এর মধ্যে মেয়র পদে ১,২২৩ এবং কাউন্সিলর পদে ১২,৪৬৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।

বাছাইয়ে তিন পদে মোট ৮৯৩ জনের প্রার্থিতা বাতিল হয়েছে। তাদের বাদ দিয়ে নির্বাচনে বৈধ প্রার্থী আছেন ১২,৭৯২ জন।
আপিল নিষ্পত্তির পর বৈধ প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সময় শেষ হবে ১৩ ডিসেম্বর। এরপর টিকে থাকা প্রার্থীদের নিয়ে আগামী ৩০ ডিসেম্বর ভোট হবে।