ফরিদপুরের ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ শাহীন গুলিতে নিহত

pistol-guli-2নিজস্ব প্রতিনিধি: ফরিদপুরের ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ আফজাল হোসেন খান শাহীন ওরফে কব্জিকাটা শাহীনের (৩৭) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।
তিনি শহরের কমলাপুর এলাকার বাসিন্দা।

পুলিশের দাবি, গুলিবিদ্ধ শাহীনকে পুলিশ ফরিদপুরের নুরু মিয়ার বাইপাস থেকে উদ্ধার করে। এরপর শনিবার রাত দুইটার দিকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায় কোতোয়ালি থানার এসআই অভিজিৎ কুমার। চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তবে নিহতের স্ত্রী শাহানা আক্তারের দাবি, শনিবার ভোর পাঁচটার দিকে যশোরের এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে শাহীনকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডা. সিরাজুল ইসলাম বলেন, এসআই অভিজিৎ লাশটি হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তবে হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। লাশের মাথায় একটি গুলির চিহ্ন রয়েছে।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানা সূত্রে জানা গেছে, ফরিদপুরে শাহীনের নামে অন্তত ১৮টি মামলা রয়েছে। তিনি বিভিন্ন মামলায় ৫৪ বছরের সাজা পেয়েছেন। তবে দীর্ঘদিন ধরে পলাতক।

শাহীনের স্ত্রী শাহানা আক্তার বলেন, শনিবার ভোরে যশোরের এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে শাহীনকে তুলে নেওয়া হয়। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। রাতে হাসপাতাল থেকে মৃতের খবর দেয়া হয়।

কোতোয়ালি থানার এসআই অভিজিৎ কুমার বলেন, কে বা কারা কব্জিকাটা শাহীনকে গুলি করে ফেলে রেখে যায়। খবর পেয়ে গভীররাতে তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।