লসএঞ্জেলেসে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সমর্থনে সমাবেশ

নিউজ ডেস্ক : লস এঞ্জেলেস (ক্যালিফোর্নিয়া):
নিরাপদ সড়কের দাবিতে বাংলাদেশে চলমান ছাত্র আন্দোলনের প্রতি সমর্থন এবং আন্দোলনে পুলিশ ও ছাত্রলীগের যৌথ হামলার নিন্দা জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াতে এক সংহিত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ৭ই আগস্ট’১৮ মঙলবার সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম বৃহৎ সিটি ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের লস এঞ্জেলেসে এই সংহতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ইসমাইল হোসেনের সঞ্চালনায় লিটল বাংলাদেশ কমিউনিটির বাংলাদেশ একাডেমীতে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন
ভাষা সৈনিক ডক্টর মুহাম্মদ সিরাজ উল্যাহ।
কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে উক্ত সংহতি সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট মুখাভিনেতা ও লিটল বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের প্রেসিডেন্ট কাজী মাশহুরুল হুদা, প্রেসক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ এম হোসেন বাবু, বিশিষ্ট উপস্থাপক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অভিনেতা মিঠুন চৌধুরী, মানবাধিকার সংগঠক শামসুল আরেফিন হাসিব, কমিউনিটি লিডার শামসুদ্দীন মানিক, এম ওয়াহিদ রহমান, নেইবাহুড কাউন্সিল মেম্বার ফয়সাল আহমেদ তুহীন, পাইলট ইলিয়াস খান এলেন, রাজশাহী-১ আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী শাহাদাৎ হোসেন শাহীন, কমিউনিটি লিডার ডা: নিয়াজ মোহাইমেন, ডিফারেন্ট টাচ ব্যান্ড শিল্পী মাহতাব আযামী, সাংস্কৃতিক কর্মী ও ব্লগার তাহিয়া পাপরী, কামাল হোসাইন, সাংবাদিক কুদ্দুস খান প্রমুখ।

বাংলাদেশে চলমান নিরাপদ সড়কের দাবীতে আন্দোলনরত স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করে বক্তারা বলেন, কোনো প্রকার রাজনৈতিক লেবাস লাগিয়ে শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত এই আন্দোলনকে সরকার পতনের আন্দোলন ভাবার অবকাশ নেই। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের অরাজনৈতিক এই আন্দোলন মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিতের আন্দোলন। এই আন্দোলন বিশৃঙ্খল দেশকে শৃঙ্খলায় ফেরানোর আন্দোলন।
এই আন্দোলন কাউকে ক্ষমতা থেকে নামানো কিম্বা কাউকে ক্ষমতায় বসানোর আন্দোলন নয়।
তথাপি সরকার এই আন্দোলনে কেন ভীতিসন্ত্রস্ত বুঝে আসেনা। আলোচকগণ আন্দোলনকারী কোমলমতি শিক্ষার্থীদের উপরে পুলিশ ও সরকারী ছাত্র সংগঠনের
পৈচাশিক হামলার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন। তারা সরকারের প্রতি আহত শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন ও গ্রেফতারকৃত শিক্ষার্থীদের মুক্তির আহবান জানান।
বক্তারা শিক্ষার্থীদের নৈতিক দাবী বাস্তবায়নে সরকারের স্বদিচ্ছা প্রমাণে নির্লজ্জ নৌ মন্ত্রী শাহজাহান খানের পদত্যাগ দাবী করেন।
তারা বলেন, ছাত্রসমাজ দেশের প্রকৃত সম্পদ, দেশের ভবিষ্যৎ। তারাই দেশকে শৃঙ্খলায় ফিরিয়ে আনবে। বিভিন্ন সময়ে ছাত্রসমাজ দেশের জন্য ঐতিহাসিক ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। ইতিহাসে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত এই আন্দোলন স্বর্ণাক্ষরে লিখিত থাকবে।