কারাগারে খাবারের তালিকা পরিবর্তন, কয়েদিদের স্বজনরা খুশি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ইংরেজ শাসনামলে কারাগার প্রতিষ্ঠার পর থেকে একই মেন্যুতে সকালের নাস্তা করতো বাংলাদেশের কারাবন্দীরা। অবশেষে পরিবর্তন হলো তাদের এই মেন্যু। এবার নাস্তায় যুক্ত হয়েছে মুখরোচক কিছু খাবার।

কারা সূত্র জানায়, কারাগার প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত সকালের নাস্তায় একটি মেন্যু ছিল। নাস্তায় একজন কয়েদি পেত ১৪.৫৮ গ্রাম গুড় এবং ১১৬.৬ গ্রাম আটা (সমপরিমাণ রুটি)। একই পরিমাণ গুড়ের সঙ্গে একজন হাজতি পেত ৮৭.৬৮ গ্রাম আটা (সমপরিমাণ রুটি)।
এ বিষয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম মিলন বলেন, নতুন মেন্যুতে একই খাবার পাবে একজন কয়েদি ও হাজতি। তারা সপ্তাহে ২ দিন পাবে ভুনা খিচুড়ি, ৪ দিন সবজি ও রুটি এবং বাকি ১ দিন হালুয়া ও রুটি। আজ রোববার ভোর থেকে এই মেন্যু কার্যক্রম হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, নতুন মেন্যুর বিষয়টি জেনে কারাবন্দীরা আনন্দ প্রকাশ করেছে। কারাবন্দীদের বিষয় মাথায় রেখে দীর্ঘদিনের মেন্যু পরিবর্তন করার জন্য প্রধানমন্ত্রী সত্যি প্রশংসার দাবিদার।

আজ সকাল ৯টায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নতুন এই মেন্যু উদ্বোধন করেন। খাবারের তালিকা সুপারিশ বাস্তবায়নের জন্য তহবিল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। অর্থমন্ত্রণালয় অতিরিক্ত ২০ কোটি ৪০ লাখ টাকা বরাদ্দ পেলেই কারা অধিদফতর দেশজুড়ে ১৩টি কেন্দ্রীয়সহ ৬৪ কারাগারে নতুন তালিকার খাবার পরিবেশন করবে।