হাজারীবাগে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ যুবক নিহত, র‌্যাবের দাবি ছিনতাইকারী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজধানীর হাজারীবাগে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মনির (৪৫) ও গিয়াস (৩৩) নামে দুই যুবক নিহত হয়েছেন।

র‌্যাবের দাবি, নিহতরা ছিনতাইকারী। নিহত মনিরের বিরুদ্ধে ছিনতাইসহ ২১টি বিভিন্ন মামলা রয়েছে। তিনি ছিনতাইকারী চক্রের মূলহোতা। চালক গিয়াস ছিনতাইকৃত কাভার্ডভ্যান বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে যেতেন।

সোমবার ভোর পৌনে ৪টার দিকে হাজারীবাগের মধুসিটির সামনে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে চা-পাতা ভর্তি ছিনতাইকৃত কাভার্ডভ্যানসহ বিদেশি পিস্তল ও কয়েক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার (এসপি) মুহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শ্রীমঙ্গল থেকে ইস্পাহানি কোম্পানির একটি চাপাতাবোঝাই কাভার্ডভ্যান ছিনতাই হয়। গোপন সূত্রে খবর, কাভার্ডভ্যানটি ঢাকায় আনা হয়েছে। সেখানে ৮-৯ টন চাপাতা আছে।

সোমবার কাভার্ডভ্যানটি গাবতলী দিয়ে বেড়িবাঁধ হয়ে নিয়ে যাচ্ছিল ছিনতাইকারীরা।

এ সময় মধুসিটির সামনে র‌্যাব সদস্যরা কাভার্ডভ্যানটিকে থামানোর চেষ্টা করেন।

এর পর কাভার্ডভ্যান থেকে কয়েকজন র‌্যাব সদস্যকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছুড়লে দুজন গুলিবিদ্ধ হয়। এ সময় অন্যরা পালিয়ে যায়।

গুলিবিদ্ধ দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরে নিহতদের সঙ্গে থাকা পরিচয়পত্র দেখে তাদের নাম জানা গেছে।

এ ঘটনায় র‌্যাবের দুই সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আহত হন।

শ্রীমঙ্গল পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত মনিরের বিরুদ্ধে ছিনতাইসহ ২১টি বিভিন্ন মামলা রয়েছে। মনির এই ছিনতাইকারী চক্রের মূলহোতা। তিনি প্রায়ই চাপাতাভর্তি কাভার্ডভ্যান ছিনতাই করে পালিয়ে যেতেন। নিহত চালক গিয়াস ছিনতাইকৃত কাভার্ডভ্যান বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে যেতেন।