ভারতে ভোটের ফল ২৩মে, বিজেপির ভরাডুবির আভাস জরিপে

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে’র বুথ ফেরত জরিপ সংক্রান্ত একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে বিজেপির ভরাডুবির আভাস পাওয়া গেছে। ফাঁস হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে, বিগত নির্বাচনের সাপেক্ষে বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোটের আসন সংখ্যা অর্ধেকে নেমে এসেছে। আরচণবিধি অনুযায়ী সব ধাপের নির্বাচন শেষ হওয়ার আগে এ ধরনের বুথফেরত জরিপ প্রকাশের কোনও সুযোগ নেই। ইন্ডিয়া টুডে ফাঁসের এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করলেও তাদের দাবি, যা ফাঁস হয়েছে তা আসলে প্রকৃত ফলাফল নয়, জরিপের ডামি।

এবারের লোকসভা নির্বাচনে ভারতের দুই হাজার রাজনৈতিক দল অংশ নিচ্ছে। মোট প্রার্থীর সংখ্যা প্রায় আট হাজার। লোকসভা নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন প্রায় ৯০ কোটি ভোটার। গতবারের থেকে এবার ভোটার সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ৯ শতাংশ। ১৩ কোটি নতুন ভোটার এবার নির্বাচনি প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। ১১ এপ্রিল ভোটগ্রহণের প্রথমদিনেই সহিংসতায় একজন নিহত হয়েছেন। এবার ১৯ মে পর্যন্ত মোট সাত দফায় ভোট গ্রহণ করা হবে। কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া লোকসভা নির্বাচনের প্রথম ধাপের ভোট ১১ এপ্রিল শুরু হয়েছে। সাত ধাপে ভোটগ্রহণ শেষে ২৩ মে ফল ঘোষণা করা হবে।

ভারতীয় জনপ্রতিনিধিত্ব আইনের ১২৬ নং ধারা অনুযায়ী, কোনও ব্যক্তি কোনও ব্যক্তি কোনও নির্বাচন শেষ হওয়ার আগে বুথফেরত জরিপের ফলাফল প্রকাশ কিংবা প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রচার করতে পারবে না। জাতীয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে প্রথম ধাপের নির্বাচন শুরুর সময় থেকে সব রাজ্য ও কেন্দ্র-শাসিত অঞ্চলের ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার আধঘণ্টা পর পর্যন্ত এই ফলাফল প্রকাশের কোনও সুযোগ নেই। তবে শুক্রবার ইন্ডিয়া টুডের টেলিভিশন স্ক্রিনে বুথ ফেরত জরিপের ফলাফল ভেসে উঠতে দেখা গেছে।

ইন্ডিয়া টুডে’র সঞ্চালক রাহুল কানওয়াল দর্শকদের বলছিলেন আগামী ১৯ মে শেষ দফার ভোটগ্রহণের পর বুথফেরত জরিপ প্রকাশের প্রস্তুতি প্রসঙ্গে । তিনি ঘোষণা দিচ্ছিলেন, ১৯ মে শেষ দফার ভোট গ্রহণের পর সন্ধ্যায় ওই জরিপের ফলাফল প্রকাশ করা হবে। সে সময় হঠাৎ করেই ক্যামেরা ঘুরে যায় তার পেছন দিকে থাকা এক কম্পিউটার স্ক্রিনে। ওই স্ক্রিনে ভেসে ওঠে বুথফেরত জরিপের ফলাফল।

জরিপের ফলাফলে দেখা যায়, দেশের ৫৪২টি লোকসভা আসনের একটি বুথ ফেরত জরিপের পোলের ফলাফল। সেখানে পরিষ্কারভাবে ফুটে উঠেছে, গতবারের থেকে ১৭৭টি আসন কমছে এনডিএ জোটের। তারা পেতে চলেছে ১৭৭টি আসন। আর গতবারের তুলনায় ৭৬টি আসন বেড়ে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোট পেতে পারে ১৪১টি আসন। উল্লেখযোগ্যভাবে, অন্যান্য দলগুলি ২২৪টি আসন পেতে চলেছে।

টেলিভিশনের পর্দায় ভেসে ওঠা এই পরিসংখ্যান ভিডিও আকারে সোশ্যাল মিডিয়ায় লিক হয়ে যেতেই নড়েচড়ে বসেছে বিজেপি এবং কংগ্রেস। যেখানে শেষ দফা ভোটের আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ বাংলায় এসে জনসভা থেকে ‘আসনসংখ্যা ৩০০ পার হয়ে গিয়েছে’ বলে ঘোষণা দিয়েছেন, সেখানে জায়গায় এই ফলাফল ফাঁস হয়ে যাওয়ায় উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছে।