শিরোনাম :

  • রবিবার, ১৬ জুন, ২০১৯

মেধাবী পুলিশ কর্মকর্তা ওয়াই এম বেলাল গাজীপুরের প্রথম কমিশনার

FB_IMG_1531926906505

নিজস্ব প্রতিবেদক : নবগঠিত গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান । তিনি পুলিশ বিভাগে মেধাবী কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিত। তবে ঢাকার কাছে গুরুত্বপূর্ণ গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশে তিনি কতটা পেশাদারিত্ব ও দক্ষতা দেখাতে পারেন সেটাই দেখার বিষয়।

পাবনার চাটমোহর উপজেলার চরপাড়া গ্রামের  ওয়াইরত্নগর্ভা মায়ের সন্তান ওয়াাই এম বেলালুর রহমান এক বছর আগে ২০১৭ সালের জুলাইতে পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পদে পদোন্নতি পান । একই বছর ২৭ জুলাই তিনি বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার হিসেবে ঢাকা মেট্রোপলিটান (ডিএমপি) তে যোগদান করেছেন। ইতি পূর্বে তিনি ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।  জানা গেছে, পাবনার চাটমোহর উপজেলার চড়পাড়া গ্রামের সফল শিক্ষাবিদ মরহুম দেলমাহমুদ মিয়া এবং সফল মাতা মরহুমা জসিমন নেছার ষষ্ট সন্তান। ১৯৬৯ সালের ০২ জানুয়ারী তিনি বগুড়ায় জন্ম গ্রহন করেন। তিনি বগুড়া জেলা স্কুল থেকে এস এস সি, সরকারী আযিযুল হক কলেজ থেকে এইচ এস সি, চট্রগ্রাম বিআইটি বর্তমান (চুয়েট) থেকে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং, এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে এমবিএ ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৯২ সালে অনুষ্ঠিত বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পুলিশ ক্যাডারে নির্বাচিত হন। সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে কর্মজীবন শুরু হয় তার। তিনি এস এস এফ (পি এম অফিস), সিএমপি খাগড়াছড়ি, আর এমপি, খুলনা জেলার পুলিশ সুপার, আইজিপি (টেলিকম) রাজার বাগ ঢাকা, নওগাঁর পুলিশ সুপার এবং ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হিসেবে সফল ভাবে দায়িত্ব পালন করেন। কর্মজীবনে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, ইতালী, বেলজিয়াম, অষ্ট্রেলিয়া, পূর্বতিমুর, সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, কম্বোডিয়া, থাইল্যান্ড, আইভোরিকোষ্ট, ঘানা, আরব আমিরাত, সৌদিআরবসহ বিভিন্ন দেশ ভ্রমন করেন।

ডাঃ প্রথমা রহমানের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন তিনি। সফল এ পুলিশ কর্মকর্তা দুই সন্তানের জনক। তার বড় ভাই ডাঃ জাহাঙ্গীর আলম কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের পরিচালক, দ্বিতীয় ভাই মেজর জেনারেল ফসিউর রহমান ঢাকাস্থ আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজের পরিচালক, তৃতীয় ভাই জালাল উদ্দিন চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজের পরিচালক, চতুর্থ ভাই হেলাল উদ্দিন ভূমি উন্নয়ন কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত আছেন।