• মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি, ২০২৩

স্কুল ছাত্র মিনারের লাশ ৫ দিন পর ফেরত দিল বিএসএফ

ডেস্ক নিউজ ।।

অবশেষে পাঁচ দিন পর দিনাজপুর সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে নিহত বাংলাদেশি স্কুলছাত্র মিনারুল ইসলাম মিনারের (১৬) মরদেহ হস্তান্তর করেছে বিএসএফ। সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে দিনাজপুরের দাইনুর সীমান্তের ৩১৪ / ৪ এস পিলার এলাকায় পতাকা বৈঠকে মিলিত হন বিজিবির ২৯ ব্যাটালিয়নের দাইনুর বিওপির সংশ্লিষ্টরা। দীর্ঘ বৈঠকের পর বিকেল ৫টার দিকে ৩১৪ / ৭ এস পিলার এলাকায় বিএসএফ ও বিজিবির উপস্থিতিতে বাংলাদেশি পুলিশের নিকট মরদেহ হস্তান্তর করা হয়।

গত বুধবার রাত ১০টার দিকে দাইনুর সীমান্তের হরিপরপুরের তেলিয়াপাড়া এলাকায় বিএসএফের গুলিতে নিহত হয় মিনারুল ইসলাম মিনার। নানা জটিলতা দেখিয়ে গত ৪ দিন ধরে তাঁর মরদেহ ফেরত দেয়নি বিএসএফ।

মরদেহ প্রদানের সময় উপস্থিত ছিলেন বিজিবি খানপুর ক্যাম্পের কমান্ডার আনিসুর রহমান, কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মাওলা, আস্করপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক, নিহত মনিরুলের বাবা জাহাঙ্গীর আলম ও স্বজনেরা।

এ সময় প্রবল বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে নিহত মিনারুলকে একনজর দেখতে এলাকাবাসী সীমান্তে ভিড় জমায়। এ দিকে মরদেহ পাওয়ার খবরে নিহত মিনারুলের বাড়িতে তার আত্মীয়-স্বজন ও এলাকাবাসী জড়ো হয়। মিনারুলের বাড়িতে এক হৃদয় বিদারক অবস্থার সৃষ্টি হয়। আজ রাত ৮টার দিকে খানপুর বুড়াপীর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার বিকেলে মাকে রঙের কাজ করতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয় মিনারুল। তখন সে তার মাকে জানায়, রঙের কাজ শেষ করে আসতে দেরি হবে। এরপর রাত ১০টায় তাঁর মোবাইলে ফোন করা হলে মিনারুলের মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। পরে মিনারুল আর বাড়িতে ফেরেনি। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে মিনারুলের পরিবার জানতে পারে, বাড়ি থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে দাইনুর সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে তার মৃত্যু হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email