শিরোনাম :

  • রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১

মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক খেলাফত মজলিসের আমীর ও ড. আহমদ আবদুল কাদের মহাসচিব পুননির্বাচিত

ঢাকা, ২৯ জানুয়ারী ২০২১: খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক বলেছেন, বর্তমান কর্তৃত্ববাদী সরকারের কারণে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গণে চরম স্থবিরতা সৃষ্টি হয়েছে। প্রশাসনের উপর ভর করে টিকে থাকা সরকার দেশকে একটি পুলিশী রাষ্ট্রে পরিনত করেছে। দেশে ঘুষ, দুর্নীতি, ধর্ষণ, নির্যাতন চরম আকার ধারণ করেছে। বিগত বছরে প্রায় ১০৫১ জন নারী ও শিশু ধর্ষণ বা গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। ব্যাংক বীমাসহ বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা গায়েব করে দেয়া হচ্ছে। বিদেশে পাচার হয়ে যাচ্ছে দেশের লাখ লাখ কোটি টাকা। চাকুরী ও কর্মহীন হয়ে পড়ছে প্রবাসীসহ লক্ষ লক্ষ নাগরিক। এ সব কর্মহীন ও চাকুরীহীন মানুষের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে তেমন কোন তৎপরতা লক্ষ করা যায়নি। করোনা, বন্যা, শীতের মহাদুর্যোগের মধ্যে দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতি জনজীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। চাল, ডাল, তেল, পেঁয়াজ, আদাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। সর্বত্র সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম চলছে। একদিকে দ্রব্যমূল্যের উদ্ধগতি অন্যদিকে কৃষকরা কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত হচেছ। এসব অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা, জুলুম নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। কর্তৃত্ববাদী শাসনের অবসান ঘটাতে হবে। খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার অধিবেশনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আজ শুক্রবার সকাল ৯টায় রাজধানীর নয়াপল্টস্থ সীগাল রেস্টুরেন্টে মাাওলানা মোহাম্মদ ইসহাকের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক খেলাফত মজলিসের আমীর ও ড. আহমদ আবদুল কাদের মহাসচিব হিসেবে শপথ গ্রহন করেছেন। শূরা সদস্য ও সদস্যদের ভোটে নবনির্বাচিত আমীরে মজলিসকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধান নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক আবদুল্লাহ ফরিদ। শূরা সদস্যদের ভোটে নির্বাচিত নবনির্বাচিত মহাসচিব অধ্যাপক ড. আহমদ আবদুল কাদেরকে শপথ বাক্য পাঠ করান আমীরে মজলিস মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক।

উপস্থিত কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার সদস্যবৃন্দ

অধিবেশনে ২০২১-২২ সাংগঠনিক সেশনের জন্যে গঠিত ১১১ সদস্য বিশিষ্ট কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ হচ্ছে:আমীরে মজলিস- অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক, নায়েবে আমীর- অধ্যাপক মাওলানা যোবায়ের আহমদ চৌধুরী, হাফিজ মাওলানা মজদুদ্দিন আহমদ, মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, মাওলানা আবদুল বাছিত আজাদ, মাওলানা মুহাম্মদ শফিক উদ্দিন, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, অধ্যাপক আবদুল্লাহ ফরিদ, অধ্যাপক মুহাম্মদ আবদুল হালিম, হাফেজ মাওলানা নোমান মাযহারী, অধ্যাপক সিরাজুল হক, মহাসচিব- ড. আহমদ আবদুল কাদের, যুগ্মমহাসচিব- মাওলানা আবদুল কাদির সালেহ, এডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, মুহাম্মদ মুনতাসির আলী, এবিএম সিরাজুল মামুন, ড. মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সল, অধ্যাপক মো: আবদুল জলিল, আলহাজ্ব সদরুজ্জামান খান, সাংগঠনিক সম্পাদক- মাওলানা এ কে এম আইউব আলী, ডাঃ এ এ তাওসিফ, মাওলানা তোফাজ্জ¦ল হোসাইন মিয়াজী, এডভোকেট মিজানুর রহমান, আহমদ আসলাম, প্রশিক্ষণ ও প্রকাশনা সম্পাদক- অধ্যাপক কাজী মিনহাজুল আলম, সমাজকল্যাণ সম্পাদক- আলহাজ¦ আবু সালেহীন, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক- আবু আদিবাহ, দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক – মুফতি শিহাবুদ্দিন, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শামসুজ্জামান চেীধুরী, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক- ডা: শরীফ মোহাম্মদ মোসাদ্দেক, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক- অধ্যাপক আবু সালমান, উলামা বিষয়ক সম্পাদক মুফতি ওযায়ের আমীন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা উম্মে সুমাইয়া, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক- মাষ্টার সাইফ উদ্দিন, মাষ্টার সিরাজুল ইসলাম, মাস্টার আবদুল মজিদ, বুরহান উদ্দিন সিদ্দকিী, অধ্যাপক মাওলানা এএসএম খুরশীদ আলম, ডাঃ হাসানুজ্জামান হেলাল, মুফতি সাইয়্যেদুর রহমান, মুহাদ্দিস শেখ মুহাম্মদ সালাহ উদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ার মাহফুজুর রহমান, মাওলানা নুরুল আল মামুন, সহ-বায়তুলমাল সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ফয়জুল ইসলাম, সহ- প্রচার, তথ্য ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক- প্রকৌশলী আবদুল হাফিজ খসরু, সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক অধ্যাপক এ কে এম মাহবুব আলম, মহিলা বিষয়ক সহ- সম্পাদিকা ঃ রায়হানা লোপা। সদস্য- মাওলানা নুরুজ্জামান খান , মাওলানা সাঈদ আহমদ, মাওলানা সৈয়দ মুশাহিদ আলী, অধ্যাপক বজলুর রহমান, মাওলানা আইউব আলী, প্রভাষক মোঃ আবদুল করিম, হাফেজ মাওলানা জিন্নত আলী, মাওলানা আহমদ বিলাল, এম মোর্শেদ, এডভোকেট হেলাল উদ্দিন, হাজী নূর হোসেন, মাওলানা কাজী আসাদ উল্লাহ, মাওলানা আবদুল কাইউম সুবহানী, মাওলানা আফতাব উদ্দিন, সাখাওয়াত হোসেন মোহন, মাওলানা আবদুল হাই, মাওলানা রুহুল আমীন চৌধুরী, মুফতি আবদুল হামিদ, মাওলানা আবদুল হক আমিনী, ডাঃ রিফাত হোসেন মালিক, মাওলানা আজিজুল হক, ডাঃ আবদুর রাজ্জাক, খন্দকার সাহাবউদ্দিন আহমদ, মাওলানা মাহবুবুর রহমান হানিফ, ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ ও উত্তরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ এবং ৩৫ জন মহিলা সদস্য।

অধিবেশনে অধ্যক্ষ মাসউদ খান -সিলেট, মাওলানা রশীদ আহমদ ফারুক বর্ণভী- মৌলভীবাজার, ডাঃ আবদুল্লাহ খান- ঢাকা, মাওলানা মাওলানা আবদুল বারী ধর্মপুরী- মৌলভীবাজার, সৈয়দ ফেরদাউস বিন ইসহাক- ঢাকা, জিয়াউল হক শামীম- ঢাকা, ডাঃ কে এম নজরুল হক- সিলেট, মাওলানা তৈয্যেবুর রহমান- বাগেরহাট, মাওলানা মুহাম্মদ সালেহ- খুলনা, মাওলানা আবদুল মান্নান-ঢাকা, সৈয়দ মুহিবুর রহমান- সিলেট, হাফিজ মাওলানা নূরুজ্জামান-সিলেট, অধ্যাপক মুহাম্মদ মুজাহিদুল ইসলাম, ড. আবদুল লতিফ মাসুম- জাবি, মাওলানা গোলাম কিবরিয়া, এডভোকেট এ কে এম বদরুদ্ধোজা- বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম- চাঁদপুর, মাওলানা ফরিদ আহমদ সিদ্দিকী-কিশোরগঞ্জ, অবদুস সামাদ সরকার- ঢাকা, ড. ইউসুফ আলী-গাজীপুর, ড. ফারুক হোসাইন- মানিকগঞ্জ, মাওলানা বুরহান উদ্দিন- চট্টগ্রাম, মাওলানা মুহাম্মদ আলী- রংপুর, মাওলানা রিয়াজুল হক কাসেমী- কুড়িগ্রাম, মাওলানা তাজুল ইসলাম-কুমিল্লা, মাওলানা হারুনুর রশীদ- নোয়াখালী, হাফেজ মাওলানা তাজুল ইসলাম, অধ্যাপক আলী রেজা- গোপালগঞ্জ, ডাঃ আবু আহমদ, অধ্যাপক আতাউর রহমান পীর- সিলেট, মাওলানা আবু তাহের-লক্ষ্মীপুর, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম-খুলনা, ক্বারী বজলুল হক- নারায়নগঞ্জ, শায়খুল হাদিস মাওলানা আসাদুল্লাহ- জয়পুরহাট, অধ্যক্ষ মাওলানা তাজুল ইসলাম- ভোলা, আবু তৈয়ব মন্ডল- রংপুর, মাওলানা মাহবুবুল হক কাসেমী- ঢাকা, ড. আবদুস শাকুর- যুক্তরাজ্য, মাওলানা আবুল কাশেম-পটুয়াখালী, হাফেজ মাওলানা ওয়ালিউল্লাহ- বি-বাড়িয়া, মাওলানা আবু তাহের জিহাদী- নারায়নগঞ্জ প্রমুখকে নিয়ে কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদ গঠন করা হয়।

অধিবেশনে একটি শোক প্রস্তাব ও ১. প্রস্তাব-১: বৈশি^ক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ও জনজীবনে স্থবিরতা ২. রাজনৈতিক সংকট ও স্থানীয় সরকারগুলোতে নির্বাচনের নামে প্রহসন ৩. অর্থনৈতিক দূরাবস্থা ও দ্রব্যমুল্যের উর্দ্ধগতি ৪. বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড, ধর্ষণ, নির্যাতন ও ৫. দেশে দেশে মুসলিম নির্যাতন প্রসঙ্গে মোট ৬টি প্রস্তাব গৃহীত হয়।

Print Friendly, PDF & Email