শিরোনাম :

  • সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১

৩০ ডিসেম্বর ভোট ডাকাতির মাধ্যমে নির্বাচন ব্যবস্থার কবর রচনা করা হয়েছে

খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আব্দুল কাদের বলেছেন, ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে আগের রাতে ভোট ডাকাতির মাধ্যমে খোদ নির্বাচন ব্যবস্থার কবর রচনা করা হয়েছে। জনগণের ভোটের অধিকার হরণের মাধ্যমে দেশে কর্তৃত্ববাদী শাসন কায়েম করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের কলঙ্কজনক নির্বাচনের অন্যতম কুশিলব সরকারের নতজানু নির্বাচন কমিশনের প্রধান সিইসি নূরুল হুদাসহ বর্তমান দুর্নীতিগ্রস্থ নির্বাচন কমিশনকে পদত্যাগ করতে হবে। ভোট ডাকাতির অবৈধ সরকারকে পদত্যাগ করে অবিলম্বে নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধিনে নতুন নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে। জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের আন্দোলনকে বেগমবান করতে হবে।

আজ (৩০ ডিসেম্বর) বুধবার বিকালে রাজধানীর বিজয়নগরে খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগরীর আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মাওলানা মুহাম্মদ শফিক উদ্দিন বলেন, ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে নির্লজ্জ ভোট ডাকাতির মাধ্যমে জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে যারা গণতন্ত্রের বিজয় দিবস পালন করে তারা জাতিকে ধোঁকা দেয়ার চেষ্টা করছে।

মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী বলেন, ৩০ ডিসেম্বর দিনের ভোট আগের রাতে সম্পন্ন করে দেশে কর্তৃত্ববাদী ফ্যাসিবাদী দু:শাসনকে প্রলম্বিত করা হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মাওলঅনা আজীজুল হক বলেন, জনগণের হারানো অধিকার পুন:প্রতিষ্ঠায় ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

ঢাকা মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা আজীজুল হকের সভাপতিত্বে ও সহসাধারণ সম্পাদক আবুল হোসাইনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায়  বক্তব্য রাখেন সাংগঠনিক সম্পাদক ড. মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সল, মাওলানা তোফাজ্জল হোসাইন মিয়াজী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক অধ্যপক আব্দুল হালিম, অফিস ও প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক মোঃ আবদুল জলিল, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: ফয়জুল ইসলাম, মুফতি আবদুল হক আমিনী, মহানগরীর সহসভাপতি মো: জহিরুল ইসলাম, এডভোকেট রফিকুল ইমলাম, তাওহীদুল ইসলাম তুহিন, শ্রমিক মজলিসের আমীর আলী হাওলাদার, খালেদ সানোয়ার, ছাত্র মজলিস ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ সভাপতি কেএম ইমরান হোসাইন প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email