• রবিবার, ১৯ মে, ২০১৯

ঢাকা উত্তর সিটির উপনির্বাচন ২৬ ফেব্রুয়ারি

282183_168আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচন ও দুই সিটিতে নতুন যুক্ত হওয়া ৩৬টি সাধারণ ওয়ার্ড ও ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ৯ জানুয়ারি এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন।

আজ বৃহস্পতিবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভা শেষে নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

বৈঠকে সম্প্রতি শুন্য হওয়া গাইবান্ধা-১ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনের উপনির্বাচনের সিদ্ধান্তও হয়েছে। আগামী ১৩ মার্চ এ দুটি আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এবং এর তফসিল ঘোষণা করা হবে ৫ ফেব্রুয়ারি।

ঢাকা সিটির নির্বাচনে ইভিএম (ইলেট্রনিক ভোটিং মেশিন) ব্যবহার প্রসঙ্গে ভারপ্রাপ্ত সচিব জানান, কমিশন সভায় এখনও ইভিএম ব্যবহারের কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে আমাদের পরিকল্পনায় রয়েছে। রংপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে যেহেতু একটি কেন্দ্রে সফলভাবে ইভিএম ব্যবহার করতে পেরেছি। ঢাকার বিষয়েও ইভিএমের কার্যকরী দিক পর্যালোচনা করে কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।

রাজধানীতে বিভিন্ন সম্ভাব্য প্রার্থীর পোস্টার-ব্যানার অপসারণ প্রসঙ্গে ভারপ্রাপ্ত সচিব বলেন, আমরা পোস্টার-ব্যানার অপসারণের জন্য ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার, দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাহী কর্মকর্তা ও পুলিশ কমিশনারসহ সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছি। আগামী ৬ জানুয়ারি মধ্য রাতের মধ্যে নিজ দায়িত্বে সম্ভাব্য প্রার্থীদের পোস্টার-ব্যানার অপসারণ করতে বলা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে কেউ যদি অপসারণ না করে তাহলে আর্থিক জরিমানাসহ আইনানুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ইসি সূত্র জানায়, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপ-নির্বাচন এবং নতুন যুক্ত হওয়া উত্তর-দক্ষিণের ৩৬ ওয়ার্ডের নির্বাচন পরিচলনার জন্য বাজেট ধরা হয়েছে ১৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে আইন-শৃঙ্খলা খাতে বরাদ্দ নয় কোটি টাকা এবং নির্বাচন ব্যবস্থাপনায় বরাদ্দ ছয় কোটি টাকা।

নির্বাচন কমিশনের সিনিয়র সহকারী সচিব মোহাম্মদ এনামুল হক জানান, বছরের শুরুতে এ নির্বাচনের জন্য বারাদ্দ রাখেনি ইসি। কিন্তু নির্বাচন যেহেতু করতেই হবে, তাই বিভিন্ন যায়গায় কাটছাট করে প্রাথমিকভাবে ঢাকায় দুই সিটিতে নির্বাচনের জন্য ১৫ কোটি টাকা বাজেট ধরা হয়েছে। নির্বাচনের কয়েকদিন আগে আইন-শৃঙ্খলা বৈঠকের পর চূড়ান্ত হিসাব দেয়া যাবে। তবে সে সময় ১৫ কোটি থাকবে কিছু টাকা কম-বেশি হতে পারে। সর্বশেষ ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন পরিচালনা জন্য বাজেট ছিল ৩৫ কোটি টাকা । ওই নির্বাচনে দুই সিটির মেয়র ও সব ওয়ার্ডে ভোট অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ভোট হয়। আওয়ামী লীগের সমর্থনে ওই নির্বাচনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন আনিসুল হক। প্রায় দুই বছর ধরে ওই দায়িত্ব পালনের মধ্যেই চলতি বছর জুলাইয়ে যুক্তরাজ্যে গিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিসে আক্রান্ত আনিসুল।
চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৩০ নভেম্বর তার মৃত্যু হয়। পরে ওই পদ শূন্য ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। ডিএনসিসির মেয়র পদের পাশাপাশি ঢাকার দুই সিটিতে যুক্ত হওয়া নতুন ওয়ার্ড গুলোতে কাউন্সিলর নির্বাচন করতে চায় ইসি।

ঢাকা উত্তর সিটির বাড্ডা ইউনিয়ন থেকে যুক্ত হয়েছে ৩৭ ও ৩৮ নম্বর ওয়ার্ড, ভাটারা ইউনিয়নে ৩৯ ও ৪০ ওয়ার্ড, সাঁতারকূল ইউনিয়নের ৪১ নম্বর ওয়ার্ড, বেরাইদ ইউনিয়নে ৪২ নম্বর ওয়ার্ড, ডুমনি ইউনিয়নে ৪৩ নম্বর ওয়ার্ড, উত্তরখান ইউনিয়নে ৪৪, ৪৫ ও ৪৬ নম্বর ওয়ার্ড, দক্ষিণখান ইউনিয়নে ৪৭, ৪৮, ৪৯ ও ৫০ নম্বর ওয়ার্ড এবং হরিরামপুর ইউনিয়নে ৫১, ৫২, ৫৩ ও ৫৪ নম্বর ওয়ার্ড।

অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের শ্যামপুর, দনিয়া, মাতুয়াইল, সারুলিয়া, ডেমরা, মান্ডা, দক্ষিণগাঁও ও নাসিরাবাদ ইউনিয়ন থেকে ডিএনসিসিতে যুক্ত হওয়া ৫৮, ৫৯, ৬০, ৬১, ৬২, ৬৩, ৬৪, ৬৫, ৬৬, ৬৭, ৬৮, ৬৯, ৭০, ৭১, ৭২, ৭৩, ৭৪ ও ৭৫ নম্বর ওয়ার্ড। ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপ- নির্বাচনের সঙ্গে এসব ওয়ার্ডে নির্বাচন দেয়ার পরিকল্পানা করেছে ইসি। এদিকে গতকাল কমিশন সভায় সম্প্রতি শুন্য হওয়া গাইবান্ধা-১ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনের উপনির্বাচনের সিদ্ধান্তও হয়েছে।

এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত সচিব জানান, আগামী ১৩ মার্চ এ দুটি আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এবং এর তফসিল ঘোষণা করা হবে ৫ ফেব্রুয়ারি। গত বছর ৩১ ডিসেম্বর সড়ক দুর্ঘটনায় গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি গোলাম মোস্তফা এবং বার্ধক্যজনিত কারণে ১৬ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান গাইবান্ধা-১ আসনের এমপি ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী ছায়েদুল হক। এরপর আসনটি দুটি শূন্য ঘোষণা করে ইসি।