স্বামীর সঙ্গে পরীমনির ছবি নিয়ে তোলপাড়

00001বিনোদন প্রতিবেদকঃ দারুণ উত্তেজনা ছড়িয়েছে চলচ্চিত্র পাড়ায়। এর কেন্দ্রবিন্দুতে চিত্রনায়িকা পরীমনি। ঠিক তাও নয়; বলা চলে এই নায়িকার কিছু পুরোনো ছবিই তাকে নিয়ে এসেছে উত্তেজনার মূলে।

আজ রোববার (৩১ জানুয়ারি) সকালে আনিক আব্রাহাম নামে একজনের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে পরীমনির বেশ কিছু ছবি আপলোড করা হয়। যেখানে পরীকে দেখা গেছে মেঠোপথে এক যুবকের কোলে ওঠে বেশ অন্তরঙ্গ ভঙ্গিতে। সেইসঙ্গে একক কিছু ছবিও রয়েছে কিশোরী পরীর। ছবি দেখে আন্দাজ করা যায় এগুলো বেশ অনেক আগের ছবি।

কেবল নায়িকার পুরোনো ছবি বলেই নয়, এগুলো মুহূর্তের মধ্যেই ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে পোস্টে উল্লেখ করা স্ট্যাটাসের কারণে। সেখানে আনিক আব্রাহাম দাবি করেছেন, নায়িকা হবার আগে পরীমনির নাম ছিলো স্মৃতিমনি। তিনি থাকতেন বরিশালের ভোলা সদরে। তার একটি বিয়েও হয়েছিলো ইসমাইল নামে যুবকের সঙ্গে। ছবিতে পরী যার কোলে শুয়ে আছেন তিনিই তার স্বামী।

আব্রাহামের ভাষায়, ‘আমার বন্ধু ইসমাইল আর তার স্ত্রী সৃতি মনি যে আজ বাংলা চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনি। এক সময় ভোলা সদরেই থাকতো তার জামাই বাড়িতে। তারপর তার নেশা গেলো অর্থ আর লোভ লালসার দিকে, যার জন্য আমার সহজ সরল বন্ধুকে ত্যাগ করতে দ্বিধাবোধ করলো না। যাই হোক ছবি গুলো দেখে পুরনো দিনের কথা মনে পড়ে গেল তাই সবার সাথে একটু শেয়ার করলাম।’

পোস্টটি আধা ঘণ্টার মধ্যেই প্রায় তিন হাজার বার শেয়ার হয়েছে। সাংবাদিকদের চোখে পড়ার পর বেশ কয়েকটি সংবাদপত্রে এটি নিয়ে খবরও প্রকাশ হয়েছে। স্বভাবতই এই ঘটনায় বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছেন হালের আলোচিত এবং সমালোচিত নায়িকা পরী।

বিষয় কি- বিস্তারিত জানতে পরীমনির সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোনটি বিজি পাওয়া যায়। প্রায় ঘণ্টাখানেক অপেক্ষা করেও পরীকে কলে পাওয়া যায়নি। তবে বেশ কিছু গণমাধ্যম পরীর বক্তব্য প্রকাশ করেছে। সেগুলোতে পরীমনি এই ছবি নিয়ে তার গোপন বিয়ের বিষয়টিকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন। তিনি বলেছেন, যার সঙ্গে ছবি সেই যুবক তার কাজিন। যখন গ্রামে থাকতেন তখন তার সঙ্গে ভালো বন্ধুত্ব ছিলো।

কিন্তু পরীর এই বক্তব্যকে বানোয়াট এবং সমালোচনার হাত থেকে নিজেকে বাঁচানোর কৌশল বলে মানছেন ফেসবুক ব্যবহারকারী ও চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা। তারা বলছেন, কাজিনের সঙ্গে ছবি থাকাটা খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু কাজিনের কোলে উঠে অন্তরঙ্গ হয়ে বিয়ের যোগ্য কোনো মেয়ের ছবি তোলাটা বড্ড অস্বাভিাবিক। তাই বুঝাই যাচ্ছে, এই ছবিগুলো দিয়ে বেশ ভালোই ফেঁসে গেলেন পরীমনি।
এদিকে বিকেল চারটার দিকে পরীমনির স্বামীর বন্ধু বলে দাবি করা আনিক আব্রহামের ফেসবুক ওয়ালে গিয়ে দেখা যায় তিনি পোস্টটি ডিলিট করে দিয়েছেন।