তুরস্ক একাধিকবার দুঃখপ্রকাশ করবে: পুতিন

00001আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, সিরিয়া সীমান্তে রাশিয়ার জঙ্গিবিমান ভূপাতিত করার জন্য তুরস্ক ‘একাধিকবার’ দুঃখপ্রকাশ করবে। বৃহস্পতিবার বার্ষিক স্টেট অব দা ন্যাশন ভাষণে পুতিন আরো বলেন,  তুরস্কের ‘সন্ত্রাসীদের সহায়তাকে’ রাশিয়া অগ্রাহ্য করবে না।
তিনি সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্তর্জাতিক জোট গঠনের এবং সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে সমর্থনের দ্বিমুখী নীতির অবসানের আহ্বান জানান।

পুতিন তার ভাষণে তুরস্কের আকাশসীমা লঙ্ঘনের দায়ে তুর্কি এফ-সিক্সটিন বিমানের দ্বারা রাশিয়ার এসইউ-২৪ জঙ্গিবিমান ভূপাতিত করাকে ‘বিশ্বাসঘাতকতাপূর্ণ যুদ্ধাপরাধ’ বলে মন্তব্য করেন।

২৪ নভেম্বর বিমান ভূপাতিত করার পর থেকেই রাশিয়া তুরস্কের বিরুদ্ধে ইসলামিক স্টেটের সাথে তেল বাণিজ্যের অভিযোগ উত্থাপন করে আসছে।
রাশিয়া এজন্য আঙ্কারাকে দুঃখপ্রকাশ করতে আহ্বান জানালে তুুরস্ক তা নাকচ করে দিয়েছে।

আলজাজিরার সিনিয়র রাজনৈতিক বিশ্লেষক মারওয়ান বিশারা বলছেন, পুতিনের আজকের বক্তব্য ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর টুইন টাওয়ারে সন্ত্রাসী হামলার পরে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের বক্তব্যকেই স্মরণ করিয়ে দেয়।

বুশের মতই পুতিন বলছেন, তুরস্ক হয় রাশিয়ার সাথে অথবা সন্ত্রাসীদের সাথে।
পুতিন সুর নরম করেননি। বরং তুরস্ক এবং অন্যান্য ইউরোপীয় ভিন্নমতাবলম্বীদের বিরুদ্ধে বাগযুদ্ধ অব্যাহত রেখেছেন।

ভাষণে পুতিন বলেন, ‘মনে হয় আল্লাহ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে তিনি তুর্কি শাসকগোষ্ঠীকে প্রজ্ঞা ও বিবেচনাবোধ থেকে বঞ্চিত রেখে শাস্তি দেবেন।’
রুশ বিমান ভূপাতিত হয়ে এক পাইলট নিহত এবং পাইলটের উদ্ধার অভিযানে এক সেনা মারা যায়।

পুতিন বলেন, শুধু গ্যাসপাইপ লাইন প্রকল্প বাতিল আর ফল ও শাকসবজি আমদানি নিষিদ্ধ করার মাধ্যমে তুরস্কের বিরুদ্ধে রাশিয়ার পদক্ষেপ শেষ হবে না।
‘কেউ যদি মনে করেন যে এই ভয়ানক যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত করে, আমাদের লোকদের হত্যা করে তাদের টমেটো অথবা নির্মাণ ও অন্যান্য খাতের ওপর বিধিনিষেধ আরোপের মাধ্যমে পার পেয়ে যাবে তবে তারা ভীষণ রকমের ভুল করছেন।’

সূত্র: আলজাজিরা, রয়টার্স