ঢাকা, শনিবার, সন্ধ্যা ৬:৩৩ মিনিট, তারিখ: ৯ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ২৩শে মার্চ, ২০১৯ ইং, ১৭ই রজব, ১৪৪০ হিজরী
ঘটনা ঘটিয়ে পরিবারসহ লাপাত্তা শাবির সেই শিক্ষক | deshnews.net

deshnews.net

ঘটনা ঘটিয়ে পরিবারসহ লাপাত্তা শাবির সেই শিক্ষক

জানুয়ারি ২৪
অপরাহ্ণ ০৬:৪৮ রবিবার ২০১৬

0001নিজস্ব প্রতিবেদক: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. আরিফুল ইসলামের প্রাইভেটকার চাপায় নিহত স্বজনদের কেউ এখনো মামলা করেনি। নিহতদের পক্ষ থেকে কোনো মামলা দায়ের করা না হলে পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা করা হবে বলে জানা গেছে।

এদিকে ঘটনার দিন থেকে অধ্যাপক আরিফুলের খোঁজ পাচ্ছেনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এদিকে এ ঘটনায় ক্যাম্পাসে নিন্দার ঝড় উঠেছে। ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি এবং নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের দাবি করেছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর সামিউল ইসলাম বলেন, ঘটনার পর পর স্পটে অধ্যাপক আরিফের সঙ্গে আমাদের দেখা হয়েছিল। এরপর থেকে প্রক্টরিয়াল বডির সঙ্গে কোনো যোগাযোগ হয়নি। তার মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে বলে সামিউল বলেন, আমি সকালে তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছি। কিন্তু তার মোবাইল বন্ধ থাকায় যোগাযোগ করতে পারিনি।

ঘটনা দুপুরে ঘটলেও শনিবার দিবাগত রাত দশটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আমিনুল হক ভূঁইয়া, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস, প্রক্টর অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামান চৌধুরীসহ বিভিন্ন হলের প্রাধ্যক্ষরা নগরীর মজুমদারীতে শোকসন্তপ্ত পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন। এসময় তারা পরিবারের সদস্যদেরকে সমবেদনা জানান এবং যথাযথ সহযোগিতা করার আশ্বাস প্রদান করেন। তবে এর আগে ঘটনার পরপরই রাস্তায় পড়ে থাকা দুর্ঘটনার আলামত ধুয়ে মুছে সাফ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ড. কামরুজ্জামান বলেন, ঘটনার পরপরই পুলিশ আলামত জব্দ করেছে। পরে আমি হাসপাতালে চলে যাই। পুলিশের অনুপস্থিতিতে আলামত মুছে ফেলা হয়েছে কিনা বিষয়টি আমি জানি না।

সিলেট মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আক্তার হোসেন বলেন, এ পর্যন্ত নিহতের পক্ষ থেকে কোনো মামলা দায়ের হয়নি। তবে নিহতদের পরিবার যদি মামলা না করে সেক্ষেত্রে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আহত রাহিবা রহমানের মামা মনজুর বলেন, রোববার বেলা ১১টায় সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে চাইলগাঁও ইউনিয়নের কাতিয়া গ্রামে তাদের দাফন সম্পন্ন হয়। এর আগে শনিবার রাতে নিহত শিক্ষক আতাউর রহমান ও গিয়াস উদ্দিনের লাশ কাতিয়া গ্রামে পৌঁছে।
মামলার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কিলো রোডে শিক্ষক ড. আরিফুল ইসলামের ড্রাইভ করা গাড়ি চাপায় নিহত হন সুনামগঞ্জের ছাতক ডিগ্রি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষক শেখ আতাউর রহমান (৫৫) ও তার চাচা মো. গিয়াস উদ্দিন (৭০)।

এ সময় আতাউর রহমানের অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে নগরীর দ্বীপ শিখা স্কুলের ছাত্রী রাহিবা রহমান (১৪) গুরুতর আহত হন পাশাপাশি ড্রাইভিং সিটে বসা অধ্যাপক ড. মো. আরিফুল ইসলাম ও তার সহযোগি গাড়ির ড্রাইভার আবুল কালাম আজাদও আহত হন।

Please follow and like us:

একই ধরণের সংবাদ

পাঠকের মন্তব্য (০)

আপনার ইমেইল একাউন্ট প্রকাশ করা হবে না
‘অবশ্যই প্রয়োজনীয়’ ক্ষেত্রসমূহ চিহ্নিত করা আছে *

ইউরোপের সংবাদ

পশ্চিমা বিশ্বকে এরদোগানের কঠোর হুঁশিয়ারি

পশ্চিমা বিশ্বকে এরদোগানের কঠোর হুঁশিয়ারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলায় নিউজিল্যান্ডকে সতর্ক করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট[…]

Please follow and like us:

ইসলামী দল/সংগঠন

টঙ্গী প্রেসক্লাবের নির্বাচন ১৮ এপ্রিল

টঙ্গী প্রেসক্লাবের নির্বাচন ১৮ এপ্রিল

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামি ১৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার টঙ্গী প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচন অনুষ[...]

সংগঠন/কর্পোরেট সংবাদ

চট্টগ্রামের বীমা মেলায় ৩টি সম্মাননা পেল ন্যাশনাল লাইফ

চট্টগ্রামের বীমা মেলায় ৩টি সম্মাননা পেল ন্যাশনাল লাইফ

নিজস্ব প্রতিবেদক : গত ১৫ ও ১৬ মার্চ চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হল দুই ‍দিনব্যাপী বীমা মেলা। জমজমাট এই ম[...]