শিরোনাম :

  • শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

৯ দিনেও খোঁজ মেলেনি ফেনীর প্রবাসী আতিক ও তার ভাগ্নের

ফেনী প্রতিনিধি: ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার দেবরামপুর গ্রামের বাসিন্দা ও প্রবাসী মোহাম্মদ আতিক উল্যাহ (৫০) ও তাঁর ভাগনে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদ (১৬) গত ৯ দিন থেকে নিখোঁজ। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তাঁদের কোনো সন্ধান মেলেনি। এই ঘটনায় ফেনীর দাগনভূঞা থানা ও ঢাকার খিলগাঁও থানায় পৃথক সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিখোঁজ মোহাম্মদ আতিক উল্যাহ প্রায় ১৫ বছর ধরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে ব্যবসা করেন এবং সপরিবার সেখানে বসবাস করেন। গত রমজানের কয়েক দিন আগে একাই গ্রামের বাড়িতে আসেন। তাঁর বোনের পরিবারের সঙ্গে উপজেলার উত্তর চণ্ডীপুরে ছিলেন। তাঁর ভাগনে মোহাম্মদ হাফেজ আবুল বাশারের ছেলে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদ স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় দশম শ্রেণিতে লেখাপড়া করে। ১৩ জুন দুপুরে মোহাম্মদ আতিক উল্যাহ আবুধাবি যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন। সঙ্গে ভাগনে হুজাইফা তাহমিদকে নেন। তাঁরা ঢাকায় এক দিন থাকবেন। তারপর আতিক উল্যাহ আবুধাবি চলে যাবেন, আর ভাগনে তাহমিদ বাড়ি চলে আসবেন—এমনটাই কথা ছিল। বাড়ি থেকে বের হয়ে তাঁরা ফেনীতে স্টার লাইন পরিবহনের একটি বাসে ওঠেন। এরপর থেকেই মামা-ভাগনে দুজনেই নিখোঁজ। দুজনের সঙ্গে থাকা দুটি মুঠোফোনও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। ঢাকা ও এলাকার সম্ভাব্য সব আত্মীয়স্বজনের কাছে খোঁজ করেও তাঁদের কোনো হদিস মেলেনি। আতিক উল্যাহ আবুধাবিতেও যাননি।

খোঁজাখুঁজির পর ওই প্রবাসীর ভগ্নিপতি ও ভাগনে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদের বাবা মোহাম্মদ হাফেজ আবুল বাশার ১৫ জুন দাগনভূঞা থানায় জিডি করেন। এ ছাড়া অপর এক আত্মীয় হাফেজ মো. মুনছুর আলম ১৭ জুন ঢাকার খিলগাঁও থানায় জিডি করেছেন।

দাগনভূঞা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ছালেহ আহম্মদ পাঠান বলেন, জিডি করার পর পুলিশের বেতারের মাধ্যমে সব থানায় খবর পাঠানো হয়েছে। কিন্তু তাঁদের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।