শিরোনাম :

  • সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

মোদিকে হত্যার পরিকল্পনা লস্কর-ই-তইয়েবার

Modi-2নিউজ ডেস্ক: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে হত্যার পরিকল্পনা করেছে পাকিস্তানি জঙ্গি গোষ্ঠী লস্কর-ই-তইয়েবা। এ লক্ষ্যে গত মাসে তাদের কমপক্ষে ৪জন সদস্য ভারতে প্রবেশ করেছে।

ভারতের গোয়েন্দাদের দেওয়া সূত্র বলছে, লস্কর-ই-তইয়েবার ওই সদস্যরা ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীর হয়ে ভারতে প্রবেশ করেছে।

সূত্র বলছে, মোদিকে হত্যাচেষ্টা ব্যর্থ হলে সাম্প্রতিক প্যারিস হামলা বা ২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর মুম্বাইয়ে পরিচালিত হামলার মতো গণহারে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল গোষ্ঠীটি। তবে এ হামলার পরিকল্পনা ব্যর্থ করে দিয়েছে ভারতের গোয়েন্দারা।
ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো (আইবি) ও দিল্লি পুলিশ ওই ৪ সন্ত্রাসীকে ধরতে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান পরিচালনা করছে। ইতোমধ্যে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের সহায়তায় গোয়েন্দারা দুই সদস্যকে ধরতে সক্ষম হয়েছে বলে উচ্চ পর্যায়ের সূত্র জানিয়েছে।
সূত্র জানায়, মূলত দুটি পরিকল্পনা নিয়ে লস্কর-ই-তায়েবার চার জঙ্গি ভারতে প্রবেশ করেছে। একটি হলো রাজধানী দিল্লিতে নরেন্দ্র মোদির কোনো সমাবেশে ১৩ নভেম্বরের প্যারিস বা ২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর মুম্বাই সন্ত্রাসী হামলার মতো বড় ধরনের কোনো হামলা চালানো।

এ লক্ষ্যে মোদির দুর্ভেদ্য নিরাপত্তাবেষ্টনী ভেদ করতে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট জঙ্গি সসদ্যসের নিজের সঙ্গে থাকা বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো বা সমাবেশে জড়ো হওয়া জনতার উদ্দেশ্যে গ্রেনেড নিক্ষেপের কথা ছিল।

সূত্র আরো জানায়, এ পরিকল্পনা ব্যর্থ হলে জঙ্গিদের দ্বিতীয় পরিকল্পনা ছিল দিল্লি এবং জম্মু-কাশ্মীরে বড় ধরনের সন্ত্রাসী হামলা চালানো যার রাজনৈতিক ও সাম্প্রদায়িক প্রভাব থাকবে।

লস্কর-ই-তায়েবা জঙ্গিদের টেলি যোগাযোগে হস্তক্ষেপ করে তাদের ‘ভিআইপি’ শব্দটি বারবার ব্যবহার করতে শোনা গেছে। এ ব্যাপারে দিল্লি পুলিশের এফআইআর-এ এমনটি উল্লেখ করা হয়েছে।

এছাড়া জঙ্গিরা দেশটিতে প্রবেশের পরই লস্কর-ই-তইয়েবার নতুন কমান্ডার আবু ডুজানার সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছিল যেখানে অপারেশন পরিচালনার জন্য তারা সরঞ্জাম ও স্থল সাহায্য চেয়েছিল।
সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া